1. www.mareza583@gmail.com : আল আমিন রেযা : আল আমিন রেযা
  2. newsbanglalatest@gmail.com : banglalatestnews.com :
  3. biswasfahim020@gmail.com : ফাহিম বিশ্বাস : ফাহিম বিশ্বাস
  4. Jobidayasmin55@gmail.com : জোবাইদা ইয়াছমিন : জোবাইদা ইয়াছমিন
  5. tonypaul978@gmail.com : টনি পাল : টনি পাল
সীতাকুন্ডের কেএসআরএম ও কেডিএস গেইটে স্হায়ী যানজট নিরসন চায় এলাকাবাসী - Bangla Latest News
মঙ্গলবার, ০৯ অগাস্ট ২০২২, ০৪:৪৯ পূর্বাহ্ন

সীতাকুন্ডের কেএসআরএম ও কেডিএস গেইটে স্হায়ী যানজট নিরসন চায় এলাকাবাসী

সীতাকুণ্ড (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধিঃ
  • সর্বশেষ হালনাগাদ : বুধবার, ২৯ জুন, ২০২২
  • ৪০ বার দেখা হয়েছে

চট্রগ্রাম প্রবেশধার সীতাকুণ্ডে মহাসড়কের পাশে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় গেইট,কেডিএস লজিষ্ট্রিক ডিপো কেএসআরএম রয়েল গেইটের সামনে ট্রাক,কাভার্ডভ্যান ও লড়ি গাড়ি গুলো রাত দিন অবৈধভাবে পার্কিং এর কারণে দীর্ঘদিন ধরে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে উভয় দিকে যানজটের বিরুদ্ধে এলাকাবাসী চরম ক্ষোভ দেখা দিয়েছে। এই জায়াগায় এসে প্রায় সময় এক কিলোমিটার রাস্তা যেতে এক ঘন্টারও অধিক সময় লেগে যায়।যানযট স্হায়ীভাবে নিরসনের দাবীতে এলাকাবাসী মানববন্ধন,প্রতিবাদ সভা,করছে,এবং ধারাবাহিকভাবে করে যাবে বলে যাত্রী সেবা কমিটি,সীতাকুন্ড বিবিন্ন সামাজিক সংগঠসের নেতৃবৃন্দগন জানিয়েছেন।

এলাকার পক্ষে উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক অর্থ সম্পাদক আউদ্দিন জানায়, মানুষের কষ্টের সীমা ছাড়িয়ে গেছে।তাই আজ মানববন্ধন,কয়েকদিন পর প্রতিবাদ সভা,বিক্ষোভ মিছিল, আয়োজন হবে।তার পরও যদি সমাধা না হয়,আরো কঠোর আন্দোলনের ডাক দেবো এলাকার জনগন কে সাথে নিয়ে।
সোনাইছড়ি ইউনিয়নস্হ আন্তর্জাতিক ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় গেইট থেকে কেডিএস লজিষ্ট্রিক, কেএসআরএম ও রয়েল সিমেন্ট গেইট প্রযন্ত ২৪ ঘন্টা লাগাতার যানজট লেগে থাকে।কর্তৃপক্ষ কোন ব্যবস্হা নেন না,এমন কি তাদের কোন সিকিউরিটিও যানজট নিরসনে কাজ করে না।
,উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক সফল উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুল্লাহ আল বাকের ভূঁইয়া,
বলেন, বিভিন্ন ইউনিয়নে অবস্হিত ঢাকা চট্টগ্রাম মহাসড়কের পাশে কেএসআরএম,রয়েল সিমেন্ট,কেডিএস লজিষ্ট্রিক,সহ বড় বড় বিভিন্ন মিল ফ্যাক্টরী,কন্টেইনার ডিপোর গাড়ি গুলো পার্কিং করে রাখে।এতে করে চট্টগ্রাম জেলাতে প্রবেশ করার জন্য সারা দেশের বিভিন্ন যানবাহন গুলো এই মহাসড়ক দিয়ে যাতায়াতের সময় তীব্র যানজটের কবলে পড়ে অসহনীয় চরম ভোগান্তিতে পড়তে হয়।বিশেষ করে যাত্রীবাহী গাড়ির নারী পুরুষ ও শিশুরা অস্বস্হিতে ভোগে।এমনকি এ যানজটে পড়ে এ্যাম্বুলেন্সের বহনকারী রোগীরা অনেক সময় মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ে।আর যানজট দীর্ঘ ১৫/২০ কিলোমিটার ব্যাপি জ্যাম লেগে থাকে ৭/৮ ঘন্টা পর্যন্ত। অথচ কেডিএস কন্টেইনার ডিপো,বিএম কন্টেইনার ডিপো, কেএসআরএম স্ক্র্যাপ ডিপো,রড়,সিমেন্ট ফ্যাক্টীরসহ ছোট বড় অন্যান্য মিল কারখানা গুলোর মালিকরা জনগণের ভোগান্তির কথা চিন্তা না করে এবং তাদের গাড়ি পার্কিং এর ব্যবস্হা তাদের কারখানার ভিতরে না করে মহাসড়কের পাশে তাদের গাড়ি পার্কিং করে রাখে।কিন্তু তারা হাজার হাজার কোটি টাকা খরচ করে প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলতে পারলেও জনগণের ভোগান্তির কথা চিন্তা করে গাড়ি পার্কিং এর ব্যবস্হা করতে পারেনি।
মিল ফ্যাক্টরীর মালিকরা জনগণের ভোগান্তি অবসান করার জন্য তাদের কারখানার ভিতরের পার্কিং করার জন্য আহ্বান জানান। কারণ চট্টগ্রামের প্রবেশের জন্য বিভিন্ন জেলা থেকে আগত বিভিন্ন পণ্যবাহী ও যাত্রীবাহী গাড়ি গুলো মহাসড়কে জ্যামে পড়ে জনগণের প্রতিদিন শত শত কোটি টাকা ক্ষতি হচ্ছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন!

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই বিভাগের আরো খবর
© All rights reserved © 2022 Bangla Latest News
Theme Customized BY ITPolly.Com